top of page
Search

অনুবাদ সাহিত্যে তাপস গুপ্ত



অনুবাদ কবিতাটি চিলির এক কবির লেখা ।তিন বছর বয়সে কবির বাবা তাঁদের ছেড়ে চলে যান। পনেরো বছর বয়সে তিনি পড়ানো শুরু করেন স্হানীয় একটি স্কুলে ।কয়েক বছর পর তিনি এক যুবকের প্রেমে পড়েন ।কিছুদিন পরে যুবক টি আত্মহত্যা করে। মহিলা আর বিয়ে করেন নি। সাহিত্য চর্চা কেই জীবনে বেছে নিয়েছিলেন তিনি ।পরবর্তীকালে তাঁর কবিতা লাতিন আমেরিকার ইতিহাসে যুগান্তকারী স্হান নেয়। তাঁর মৃত্যুর পর চিলিতে তিন দিন রাস্ট্রীয় শোক পালন করা হয়েছিল ।আজ তাঁর আর একটি কবিতা অনুবাদ করে দিলাম ।কবিতা টি পড়ার সময় রবীন্দ্রনাথের "বলাই" গল্প টি মনে পড়ে যাচ্ছিল । যেখানে গাছ গুলি কে বলাই -এর মনে হত পুরনো দিনের ঠাকুর্দা যেন ।




পাইন ফরেস্ট

গাব্রিয়েলা মিস্ত্রেল (1889...1957)


এসো ছুঁয়ে আসি উপত্যকার পাইন অরন্যানী

গাছের গন্ধ ছুঁয়ে যায় আমার শহুরে মুখখানি

নীচু হয়ে তুলে নাও আমায়, জানাই বিনত মিনতি

সাড়া দিলে না পাইন, খুব কি করেছি ক্ষতি ?

রাতের জ্যোত্স্না খেলা করে পাইন জুড়ে

চঞ্চল রাতের আলোয় পাইন শুধু স্থানু হয়ে থাকে

বসন্তের হাওয়া বয়ে আনে আহত প্রেমের ক্ষত

গোধূলির আশীর্বাদে অস্তরাগ থাকে শাশ্বত।

যদি পারা যেত পাইনের মাথায় চড়ে

উড়ে যেতে পাহাড় থেকে পাহাড়ে

অধরা উপত্যকায় অচেনা সবুজ গালিচায়

শিশু যেভাবে কোলে ফেরে বারবার

পিতা থেকে পিতামহ , প্রপিতামহের কোশ, মেদ,রক্ত,অনুচক্রিকায়।



তাপস গুপ্ত

ব্যাঙ্গালোর

Oct, 2017


গল্পওলার গল্প

গাব্রিয়েলা মিস্ত্রেল


আমার চারণায় বসুন্ধরা জেগে ওঠে

থেমে থেমে ফিসফিসিয়ে গল্প শোনায় কম্পিত ঠোঁটে

চলমান মানুষের বিরামহীন গতি

শুধু কাহিনি রয়ে যায় নিঃসঙ্গ ধূলায়

রেশমি সুতোয় গেঁথে কথামালায়

গুটি থেকে রূপ পায় রূপকথা প্রজাপতি ।

ধমনি শিরায় বাহিত রক্তস্রোতে

গল্পওলা হারায় ঘুমন্ত চেতনায়

জ্বলন্ত অথবা দহিত ঘূর্ণিতে

গল্প পাক খায় নিঃশ্বাস প্রশ্বাসে

অজানা অনু-পরমাণুকত কাহিনি-কথন

কোলের বালিশে শুয়ে করে রাত্রিযাপন।





অনুবাদ

তাপস গুপ্ত

ব্যাঙ্গালোর

Oct 2017

16 views0 comments

Comments


bottom of page