Search

১৮ ই মে সংখ্যা ।। কবিতা ।। মানস   দেব


ভাড়াটিয়া উপাখ্যান 

মানস   দেব




 শুনুন - শুনুন -  শুনুন -  গুণীজন

ভাড়াটিয়ার জীবন কাহিনী করিব বর্ণন ।



 কি ভীষণ যন্ত্রণা আজি

চেপে আছি বুকে   ;

চাকুরী সূত্রে বাড়ি ছেড়েছি

দীর্ঘ দশ বছর আগে ।

যাযাবরের মতো

ঘুরছি এবাড়ি-ওবাড়ি ,

ভাড়াটিয়া হয়ে ।

দিচ্ছি ভাড়া মাসের ঠিক দুই তারিখে

তবু মালিকের মুখটা থাকে কালো ।

কথায় কথায় বলেন -

" ঘরদোর গুলো  রাখছেন না ভালো ।

রান্নার ধোঁয়ায় ঘর হচ্ছে ভীষণ কালো ।  "

আবার কখনো বলে ওঠেন  -

" হেথা ফেলবেন না ময়লা গুলো ,

বাড়িটা করে ফেলেছেন অতি জঞ্জাল বড়ো । "

কখনো বা হেসে হেসে বলেন -

" ঘরের রংটা চটে গেছে বারে বারে হাত লেগে ,

বাড়িটা ব্যবহার করুন একটু বুঝে শুনে । "

কখনো বলতে শুনি  -

"  কি দাদা আপনার বাইকে ভাঙছে যে সিঁড়ি ,

এগুলো সারাবার দায়িত্ব কে নেবে শুনি ?  "

পাড়ার লোকের সাথে কথায় কথায়


 মালিক বলেন  -

"  আপনার ভাড়াটিয়া শুনেছি বড্ড ভালো   ;

আমার ভাড়াটিয়া বড্ড জঞ্জাল  - কোথা থেকে  যে এলো !  "

আবার কখনো চোখ রাঙিয়ে বলেন  -


" অনেক হয়েছে দাদা ,

এবার দয়া করে ছাড়ুন আমার বাড়ি খানা । 

অনেক কিছু সারাতে হবে নতুন করে 

দেওয়ালে রং গুলো পড়ছে যে ঝোরে ,

 আপনাদের বে - হিসেবি ব্যবহারে ।  "



মালিকপক্ষ শুনুন মন দিয়ে  -

ভাড়াটিয়া হয় না কেউ শখ করে ।

 কেউ বা জীবন জীবিকার সন্ধানে

আপন বাড়ি ছাড়ে চোখের জলে ।

কেউ আবার বাড়ি ছাড়ে কোন্দলের ত্রাসে

ভাড়াটিয়া হয় যে ভাগ্যের পরিহাসে ।

4 views0 comments